১৫ অক্টোবর ২০১৯। আকাশ পরিষ্কার। ঘড়ির কাটা তিনটা ছুই ছুই। দলে দলে আসছে বিজ্ঞানপ্রেমীরা। প্রথম আলোর সিএ ভবন ‘শুভ জন্মদিন বিজ্ঞানচিন্তা’ ধ্বনিতে মুখরিত। এখানেই শুরু হয়েছে বিজ্ঞানচিন্তার তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী । চতুর্থ বছরে পা রাখল দেশের সফল বিজ্ঞান ম্যাগাজিন বিজ্ঞানচিন্তা।

শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞানচিন্তার সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম। তিনি বলেন, অক্টোবর মাসটি বিজ্ঞানচিন্তার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং নোবেলের জন্য বিখ্যাত। তাঁর কথায় এ বছর বিজ্ঞানে নোবেলের তাৎপর্য উঠে এসেছে। বৈশ্বিক উষ্ণায়ন সম্পর্কে বলেন, আমরা বৈশ্বিক উষ্ণায়ন সম্পর্কে আরো সচেতন না হলে আমাদের পক্ষে টিকে থাকা সম্ভব হবে না। 

এরপর শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হক। তিনি বলেন, বিজ্ঞানের মাধ্যমে আমরা দৈনন্দিন জীবনের নানাবিধ সমস্যা সমাধান করতে পারি। সর্বোপরি বিভিন্ন ম্যাগাজিন পড়লে একজন ভালো মানুষ হওয়া যাবে। বিজ্ঞানচিন্তা এগিয়ে যাক।

উন্মাদ পত্রিকার সম্পাদক আহসান হাবীব বলেন, আমাদের সকলের উচিৎ বিজ্ঞানের সাথে থাকা। বিজ্ঞান অনেক অজানাকে জানায়। বিজ্ঞানচিন্তা ৩ বছরে পা দেওয়ায় আব্দুল কাইয়ুমসহ বিজ্ঞানচিন্তা পরিবারের সকলকে শুভেচ্ছা বা অভিনন্দন।

সাবেক জ্যেষ্ঠ পারমাণু বিজ্ঞানী রেজাউর রহমান বলেন, বিজ্ঞানকে পড়তে হবে আনন্দের সাথে। ভয় পেলে বিজ্ঞান শেখা যাবে না। বিজ্ঞানচিন্তা বিজ্ঞানভীতি দূর করার সেই কাজটি করে আসছে তিন বছর ধরে। এজন্য বিজ্ঞানচিন্তাকে ধন্যবাদ।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ছড়াকার আখতার হুসেন, ছড়াকার ও চিকিৎসক রোমেন রায়হান, বন্ধুসভার জাতীয় কমিটির সভাপতি সাইদুজ্জামান রওশন, প্রথম আলোর প্রশাসনিক কর্মকর্তা এস এম সাজ্জাদ, বিজ্ঞানচিন্তার মুদ্রণ ব্যবস্থাপক শামসুল হক,  নির্বাহী সম্পাদক আবুল বাসার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন মৌসুমী মৌ।

শুভেচ্ছা বক্তব্যের পর বিজ্ঞানচিন্তার থিম সং গেয়ে শোনান শিল্পী অটামনাল মুন। এছাড়া বন্ধুসভার বন্ধু অন্তরা একটি গান পরিবেশন করেছেন।

বিজ্ঞানচিন্তা সম্পর্কে একজন অভিভাবক বলেন, আমার ছেলে পঞ্চম শ্রেণি থেকে নিয়মিত বিজ্ঞানচিন্তা পড়ছে। ফলে তাঁর টেলিভিশন ও মোবাইল ফোনের প্রতি আসক্তি কমেছে।

একজন শিক্ষার্থী বলেন, বিজ্ঞানের যে জটিল বিষয়গুলো পাঠ্য বইয়ে বোঝা যায় না তা বিজ্ঞানচিন্তা পড়ে সহজেই বুঝতে পারি। এজন্য বিজ্ঞানচিন্তাকে অনেক ধন্যবাদ।

ছিল ম্যাজিশিয়ান স্বপন দিনারের বিশেষ ম্যাজিক। এরপর ছিল বিজ্ঞানচিন্তার স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মানিত করার পালা। সারা বছর যে সব স্বেচ্ছাসেবক বিজ্ঞানচিন্তায় সক্রিয় থেকেছেন, তাদের মধ্য থেকে দশজনকে ক্রেস্ট তুলে দেন বিজ্ঞানচিন্তার সম্পাদক ও অতিথিবৃন্দ।

ছিল বিজ্ঞানচিন্তা বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা। এ পর্বটি সঞ্চলনা করেন আলিমুজ্জামান ও সায়েফ রহমান। বিজ্ঞানচিন্তার পাঠকদের কাছে বিজ্ঞানচিন্তা বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্ন করা হয়। কুইজে সঠিক উত্তর দাতাদের জন্য ছিল বই ও বিজ্ঞানচিন্তার চলতি সংখ্যা একটি করে, বিজ্ঞানচিন্তার ৬ মাসের ফ্রি সাবস্ক্রিপশন।

তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অন্যতম আকর্ষণ হলো বিজ্ঞানচিন্তার ওয়েবসাইট লঞ্চিং। এখন থেকে বিজ্ঞানচিন্তা আর শুধু ম্যাগাজিন নয়, অনলাইনেও পড়া যাবে বিজ্ঞানচিন্তার আর্টিকেলগুলো। www.bigganchinta.com এই ঠিকানায় ব্রাউজ করে এখন বিজ্ঞানচিন্তা পড়া যাবে।  ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন সম্পাদক আবদুল কাইয়ুম।

সবশেষে  কেক কেটে বিজ্ঞানচিন্তার আনুষ্ঠানিক জন্মদিন পালন করা হয়। ফটোসেশনের মাধ্যমে শেষ হয় এই আয়োজন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন