রসায়নে নোবেল ২০২০
রসায়নে নোবেল ২০২০প্রথম আলো

শেষ হল বিজ্ঞানচিন্তার চতুর্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত বিশেষ বিজ্ঞান বক্তৃতা। মঙ্গলবার রাত আটটায় বিজ্ঞানচিন্তার ফেসুবক পেজ, গ্রুপ, প্রথম আলোর ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে এক যোগে প্রচারিত হয়।

বিজ্ঞান বক্তৃতার শেষ পর্বের বিষয় ছিল রসায়নের নোবেল ২০২০। বিজ্ঞানচিন্তা ও মেটালের যৌথ এ অনলাইনে আয়োজনে আলোচক ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ রসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান জেবা ইসলাম সেরাজ, ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. নুরুজ্জামান খান এবং জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুশতাক ইবনে আয়ূব।

বিজ্ঞাপন

এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞানচিন্তার সম্পাদক আবদুল কাইয়ুম। তিনি বলেন, ‘এ বছর যাঁরা রসায়নে নোবেলে পেয়েছেন, তারা ক্রিসপার ক্যাস৯ নিয়ে গবেষণা করেছেন। এই প্রযুক্তি আসলে মানুষের জীবনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। চিকিৎসা বিজ্ঞানে নতুন দুয়ার খুলে দিয়েেছ।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ রসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান জেবা ইসলাম সেরাজ বলেন, ‘জিন এডিটিং পদ্ধতি আগেও ছিলেন কিন্তু ইমান্যুয়েল শারপঁতে ও জেনিফার ডোন্ডা ক্রিসপার কাস৯ প্রযুক্তি ব্যবহার করে জিনোম এডিটিংটা অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। তাঁদের গবেষণা চিকিৎসাপদ্ধকেই আমূলে বদলে দিতে চলেছে। সুতরাং নোবেল তাঁদের প্রাপ্যই ছিল। তবে ক্রিসপার প্রযুক্তি অপব্যবহার যাতে না হয়, সে বিষয়টা নিশ্চিত করা জরুরি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. নুরুজ্জামান খান ক্রিসপার প্রযুক্তির পেছনের রসায়নটা কি তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করে। সঙ্গে কিছু স্লাইড প্রদর্শনও করেন। ক্রিসপার প্রযুক্তি কী, কীভাবে এই পদ্ধতি কীভাবে কাজে লাগানো হয় মানুষের জীবন বাঁচাতে, সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুশতাক ইবনে আয়ূব।

এই বিজ্ঞান বক্তৃতাটি সঞ্চলনা করেন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ওয়াইওমিংর পিএইচডি শিক্ষার্থী ও বিজ্ঞানচিন্তার সম্পাদনা দলের সদস্য ইবরাহিম মুদ্দাসসের।

এর আগে, গত ১৫ অক্টোবর ছিল বিজ্ঞানচিন্তার চতুর্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এ উপলক্ষ্যে কৃষি প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদন ও বিপননকারী প্রতিষ্ঠান মেটালের সহযোগিতায় তিন পর্বের অনলাইন বিজ্ঞান বক্তৃতার আয়োজন করা হয়। বিজ্ঞান বক্তৃতার মূল বিষয় ছিল বিজ্ঞানে নোবেল ২০২০।

বিজ্ঞাপন

১৫ অক্টোবর প্রথম পর্বের আলোচনার বিষয় ছিল চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল ২০২০। প্রথম পর্বে প্রধান বক্তা ছিলেন চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের অণুজীব বিজ্ঞানী সেঁজুতি সাহা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্ত সাদিদ জামিল। এ বিজ্ঞানচিন্তার প্রধান পৃষ্ঠপোষক সিটি ব্যাংকের ববস্থাপনা পরিচালক মাসরুর আরেফিন এবং বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদির বিজ্ঞানচিন্তার পাঠক, লেখক ও সম্পাদকমণ্ডলীকে শুভেচ্ছা জানান।

পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল নিয়ে দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হয় গত ২২ অক্টোবর। বক্তৃতায় মূল আলোচক ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার মোরেনো ভ্যালি কলেজের অধ্যাপক ও জ্যোঃতিপদার্থবিজ্ঞানী দীপেন ভট্টাচার্য, ঢাকার ইনডিপেন্ডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী আরশাদ মোমেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানী ও সহকারী অধ্যাপক খান মুহাম্মদ বিন আসাদ।

প্রথম দুই পর্বের সঞ্চালক ছিলেন মৌসুমি মৌ।

মন্তব্য করুন