বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইরিডিয়াম ও ওসমিয়াম আবিষ্কৃত হয়েছিল ১৮০৩ সালে। ব্রিটিশ রসায়নবিদ স্মিথসন টেনন্যান্ট অবিশুদ্ধ প্লাটিনামকে অ্যাকুয়া রেজিয়ায় (হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড ও নাইট্রিক অ্যাসিডের মিশ্রণ) দ্রবীভূত করে কালো একটি অধঃক্ষেপ পেলেন। অনেকে ধারণা করেছিলেন, সেটি হয়তো গ্রাফাইট। তবে সে কথায় বিশ্বাস না করে অবশিষ্ট পদার্থটি নিয়ে পরীক্ষা করে দেখলেন। এতে তিনি অজানা নতুন দুটি মৌল পেলেন। এর একটির নাম ওসমিয়াম এবং আরেকটির নাম ইরিডিয়াম দিলেন তিনি। প্রথমটির অদ্ভুত গন্ধের কারণেই নাম দেওয়া হয়েছিল ওসমিয়াম। কারণ, গ্রিক শব্দ ওসমি (osme) অর্থ গন্ধ। আর দ্বিতীয় মৌলটি রঙিন হওয়ার কারণে গ্রিক রংধনুর দেবী আইরিসের নামে রাখা হলো ইরিডিয়াম।

রসায়ন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন