মুহম্মদ জাফর ইকবাল, মুনির হাসানসহ একাধিক শিক্ষক ও শিক্ষিকা গ্রাম ও মফস্বলের স্কুলগুলোতে ডিভাইস সংকটের কথা জানিয়েছেন। কেউ কেউ মনে করেন, বড় প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংকগুলো তাদের পুরোনো অব্যবহৃত ল্যাপটপগুলো এরকম স্কুলগুলোতে দিয়ে দিতে পারে। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এলে এই সমস্যা মোকাবেলা করা সম্ভব।

বইটি শিশু শিক্ষার্থীদের বাংলা ভাষায় সহজে স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং শিখতে সাহায্য করবে। শিশুরা যেমন বইটি পড়ে নিজে নিজে স্ক্র্যাচের মাধ্যমে প্রোগ্রামিং করতে পারবে, তেমনি শিক্ষকরাও এই বইয়ের সাহায্যে শিক্ষার্থীদের প্রোগ্রামিংয়ে অনুপ্রাণিত করতে পারবেন। ছবি ও বিভিন্ন প্রজেক্টের মাধ্যমে বইটিতে হাতে-কলমে ধাপে ধাপে স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং শেখানো হয়েছে। এই বইটি শিশু শিক্ষার্থীদের মজা করে প্রোগ্রামিং সমস্যা সমাধানে আগ্রহী করে তুলবে বলে আশা করা যায়।

চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের পথে আগাচ্ছে পৃথিবী। এ বিপ্লবে অংশ নিতে বাংলাদেশের প্রয়োজন দক্ষ জনশক্তি। প্রোগ্রামিং এই দক্ষ জনশক্তি গড়ার কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। সেজন্য বিডিওএসএন এই প্রকল্প হাতে নেয়। প্রকল্পের অধীনে প্রথমে ২-৪ জন শিক্ষককে নিয়ে আয়োজিত হয় 'শিক্ষক বুট ক্যাম্প'। এ ক্যাম্পে শিক্ষকদের স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। পরে ২০২২ সালের জুন মাস থেকে আগস্ট ২০২২, এই তিন মাসে ২২টি স্কুলে স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং কর্মশালার আয়োজন করে বিডিওএসএন। এই কর্মশালাগুলোতে ১০১৭ জন শিক্ষার্থী স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিংয়ের সঙ্গে পরিচিত হয়। এর পাশাপাশি স্ক্র্যাচ শেখার একটি ম্যানুয়ালও তৈরি করেছে বিডিওএসএন। 'ছোটদের স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং' বইটি মূলত তারই বিস্তৃতি।

স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং করা যাবে এই লিঙ্ক থেকে : scratch.mit.edu

ইভেন্ট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন